• প্রচ্ছদ » » কানাডায় বাংলাদেশিদের সবাই যাতে ভ্যাকসিন নেয়, তার জন্য আসুন প্রত্যেকেই সচেষ্ট হই


কানাডায় বাংলাদেশিদের সবাই যাতে ভ্যাকসিন নেয়, তার জন্য আসুন প্রত্যেকেই সচেষ্ট হই

আমাদের নতুন সময় : 24/07/2021

শওগাত আলী সাগর : চারদিকে ভ্যাকসিনের ছড়াছড়ি, সেই অনুপাতে মানুষ নেই। অথচ ভ্যাকসিনের ওপর নির্ভর করেই অর্থনীতির চাকা ঘুরতে শুরু করেছে, সেপ্টেম্বরে স্কুল- কলেজ খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এখন যারা করোনায় সংক্রমিত হচ্ছেন- তারা ভ্যাকসিন না নেওয়া লোক। ভবিষ্যতে যারা সংক্রমিত হবেন- তারা আসলে ভ্যাকসিন না নেওয়া লোক। ‘প্যানডেমিক অব আনভ্যাকসিনেটেডস’ কথাটা খুবই উচ্চারিত হচ্ছে। কানাডা এবং আমেরিকা- দুদেশেই। কানাডায় বাংলাদেশিদের সবাই কি ভ্যাকসিন নিয়েছেন! আলাদাভাবে তার কোনো তথ্য নেই। তবু আমাদের দায়িত্ব থাকে খোঁজ করার, কেউ ভ্যাকসিন না নিয়ে থাকলে, ভাকসিন নিতে না পারলে তাদের সহায়তা করার, উদ্বুদ্ধ করার। কানাডায় বসবাসরত বাংলাদেশিদের সবাই ভ্যাকসিনের আওতায় আসুক, সেটা নিশ্চিত করতে আমরা প্রত্যেকেই কিছুটা হলেও ভ‚মিকা রাখতে পারি।
কানাডায় নানা রকম সংগঠন আছে, জেলা সংগঠনগুলোর সদস্য সংখ্যা অনেক। তারা উদ্যোগ নিয়ে খোঁজ করতে পারেন, তাদের সদস্যদের সবাই ভ্যাকসিন নিয়েছেন কিনা। অন্যান্য সংগঠনগুলোও এই কাজ করতে পারে। কয়েকটি অনলাইন ফোরামের সদস্য সংখ্যা অনেক। তারা এই ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা রাখতে পারে। প্রত্যেকেই তৎপর হলে কানাডায় বাংলাদেশিদের কেউ ভ্যাকসিনের বাইরে থাকবেন না। কেউ ভ্যাকসিন না নিলে সমস্যা কী হয় জানেন? আপনি ভ্যাকসিন না নিলে ‘প্যানডেমিক অব আনভ্যাকসিনেটেডে’-এর দায় আপনার ওপরও বর্তায়। আরেকটা কথা। বাংলাদেশসহ বিশ্বের অনেক দেশ করোনার ভ্যাকসিনের জন্য হাহাকার করছে। তারা ভ্যাকসিন সংগ্রহ করতে হিমসিম খাচ্ছে। কানাডায়, টরন্টোয়- প্রচুর পরিমাণ ভ্যাকসিন, আপনি ভ্যাকসিন না নিলে সেগুলো নষ্ট হবে। মেয়াদোত্তীর্ণ হয়ে গেলে কানাডা সেগুলো ফেলে দেবে। ভ্যাকসিনের এই অপচয়ের দায়ও আপনার ওপর বর্তাবে। কানাডায় বাংলাদেশিদের সবাই যাতে ভ্যাকসিন নেয়, তার জন্য আসুন আমরা প্রত্যেকেই সচেষ্ট হই। লেখক : সিনিয়ার সাংবাদিক




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]