• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » [১]১৮ বছর বয়সী সব নাগরিককে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী [২]আগামী বছরের শুরুতে ২১ কোটি ডোজ আসবে [৩]রাজধানীতে ভর্তি রোগীর ৭৫ শতাংশই গ্রামের, যাদের ৯০ শতাংশই টিকা নেয়নি [৪]ঢাকার ৬ সরকারি হাসপাতালে যুক্ত হচ্ছে ১২০০ কোভিড শয্যা [৫]ডিএনসিসি হাসপাতালে শিগগিরই চালু হচ্ছে ২০ হাজার লিটার ধারণক্ষমতার অক্সিজেন প্ল্যান্ট


[১]১৮ বছর বয়সী সব নাগরিককে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী [২]আগামী বছরের শুরুতে ২১ কোটি ডোজ আসবে [৩]রাজধানীতে ভর্তি রোগীর ৭৫ শতাংশই গ্রামের, যাদের ৯০ শতাংশই টিকা নেয়নি [৪]ঢাকার ৬ সরকারি হাসপাতালে যুক্ত হচ্ছে ১২০০ কোভিড শয্যা [৫]ডিএনসিসি হাসপাতালে শিগগিরই চালু হচ্ছে ২০ হাজার লিটার ধারণক্ষমতার অক্সিজেন প্ল্যান্ট

আমাদের নতুন সময় : 25/07/2021

শিমুল মাহমুদ: [৬] স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক এমপি বলেছেন, দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলিকে নির্বিঘ্ন রাখতে এবং অধিকাংশ নাগরিককে ভ্যাক্সিনের আওতায় নিয়ে আসতে টিকা দেয়ার ক্ষেত্রে বয়সসীমা কমানো হয়েছে। ইতোমধ্যেই সরকারের আইসিটি বিভাগের আওতাধীন জাতীয় সুরক্ষা অ্যাপে ১৮ বছরের উর্দ্ধে সকল নাগরিক যেন রেজিষ্ট্রেশন করতে পারে সে ব্যাপারে একটি নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে।
[৭] জাহিদ মালেক জানিয়েছেন, ৩ কোটি চায়না, ৩ কোটি অ্যাস্ট্রোজেনেকা, ৭ কোটি কোভ্যাক্স, ১ কোটি রাশিয়া এবং ৭ কোটি জনসন অ্যান্ড জনসনের টিকা ব্যবস্থা করা হয়েছে। যদি এগুলো সময় মতো পাওয়া যায় তাহলে বাংলাদেশ কোনো দেশ থেকে পিছিয়ে থাকবে না। যথাসময়ে ৮০ শতাংশ জনগোষ্ঠীকে টিকার আওতায় আনা যাবে।
[৮] শনিবার কোভিড-১৯ সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি প্রতিরোধ, অক্সিজেন সংকট, হাসপাতালের সুযোগ-সুবিধা ও শয্যা সংখ্যা বৃদ্ধি শীর্ষক স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বাংলাদেশ প্রাইভেট মেডিকেল কলেজ এসোসিয়েশনের সদস্যভুক্ত প্রতিষ্ঠানের মতবিনিময় সভায় জুম মিটিংয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।
[৯] এরআগে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানান, ঢাকার শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৪০০, জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠানে (নিটোর) ৩০০, স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ২০০ এবং ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস ও হাসপাতাল, জাতীয় চক্ষুবিজ্ঞান ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল এবং জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে ১০০টি করে শয্যা যুক্ত করা সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।
[১০] এর বাইরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল ইউনিভার্সিটির কনভেনশন সেন্টারটিকে কোভিড রোগীদের জন্য এক হাজার শয্যার ফিল্ড হাসপাতালে রূপান্তর করা হবে। এরমধ্যে ৪০০টি আইসিইউ ও এইচডিইউ শয্যা থাকবে।
[১১] ডিএনসিসি ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল একেএম নাসির বলেন, প্রতিদিন ৫০ থেকে ৬০ রোগী ভর্তি হচ্ছেন। আমাদের এখানে যেসব রোগী আসছে তার ৭০ ভাগ ঢাকার বাইরের। বাকি ৩০ ভাগ ঢাকার আশপাশের।
[১২] তিনি জানান, হাসপাতালে এক হাজার বেডের মধ্যে ৫০০ বেডে সেন্ট্রাল অক্সিজেন সংযুক্ত। সেন্ট্রাল অক্সিজেন ছাড়া ৫০০টি সিলিন্ডার বেইজড ছোট ছোট রুমে একজন রোগী রাখা যায়।
[১৩] ঢামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাজমুল হক বলেন, যে পরিমাণ আইসিইউ আছে, সেগুলো ফাঁকা থাকার সুযোগ নেই। আজ রোগী ভর্তি আছে ৭২৪ জন। বিছানা খালি না থাকায় নতুন করে কোনো রোগী নিতে পারছি না। প্রতিদিন ৬০ থেকে ৭০টা নতুন করোনা রোগী আসে। শয্যা না থাকার পরও কিছু রোগী ভর্তি নিতে হয়। কিছু কিট্রিক্যাল রোগী শেখ হাসিনা বার্নে স্থানান্তর করতে হয়। সম্পাদনা: শাহানুজ্জামান টিটু




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]