ইন্দোনেশিয়ার উপকূলে দ্বিতীয় নৌকায় ৪’শ অভিবাসী আটক

আমাদের নতুন সময় : 11/05/2015

963083আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইন্দোনেশিয়ার উপকূলে দ্বিতীয় নৌকায় আরো ৪’শ অভিবাসী আশ্রয় নিয়েছে। এসব অভিবাসীরা মিয়ানমার ও বাংলাদেশ থেকে সাগর পাড়ি দিয়ে সোমবার সেখানে পৌঁছেছে বলে ইন্দোনেশিয়ার কর্মকর্তারা দাবি করছেন। কাঠের নৌকায় একদিন আগে রোববার ৫৭৩ জন অভিবাসী ইন্দোনেশিয়া উপকূলে পৌঁছালে তাদের আটক করা হয়। এরা সবাই ইন্দোনেশিয়ার উত্তরাঞ্চল এলাকা আচে প্রদেশের বাকতিয়া এলাকার মাতাং রায়া গ্রামে আছে।
ইন্দোনেশিয়ার আচে প্রদেশের মানব পাচার অনুসন্ধান ও উদ্ধার তৎপরতার প্রধান বুদিয়াবান বলেছেন, মিয়ানমার থেকে রোহিঙ্গা ও বাংলাদেশি অভিবাসীদের নিয়ে দ্বিতীয় এ নৌকাটি সোমবার সকালে আটক করা হয়েছে। কর্তৃপক্ষের ধারণা এধরনের আরো নৌকায় করে অবৈধ অভিবাসীরা ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া ও থাইল্যান্ড উপকূল এলাকায় নামার অপেক্ষায় রয়েছে। বুদিয়ান আরো জানান, সাগরে তার প্রহরীরা তৎপর রয়েছে এবং জেলেদের সতর্ক করে রাখা হয়েছে। এধরনের বিপদজনক অবস্থায় অভিবাসীদের পেলে তাদের উদ্ধার করা হবে।
এ নিয়ে অন্তত হাজার খানেক অভিবাসীকে আচে প্রদেশের আশ্রয় কেন্দ্রে খাবার ও ওষুধ দিয়ে স্থানীয় প্রশাসন ও এলাকাবাসী সাহায্য করছে। উদ্ধারপ্রাপ্ত এক রোহিঙ্গা অভিবাসী জাহাঙ্গীর হোসেন সাংবাদিকদের জানান, মানব পাচারকারীরা বিপদ টের পেয়ে সামান্য জ্বালানী সহ তাদের সাগরে ভাসিয়ে দিয়ে সটকে পড়ে। তাদের নৌকায় তোলা হয় থাইল্যান্ড থেকে এবং এরপর মালয়েশিয়ার দিকে যাত্রা শুরু করলে সেখানে সুবিধা না পেয়ে ইন্দোনেশিয়া উপকূলে এনে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়। থাইল্যান্ডে মানব পাচারকারীদের বিরুদ্ধে ব্যাপক অভিযান শুরু হবার পর দেশটির উপকূলের বিভিন্ন জঙ্গলে আটক অনেক অভিবাসীকে এখন নৌকায় করে মালয়েশিয়া নিয়ে যাবার কথা বলে পাচারকারীরা তাদের সাগরে ফেলে নিজেরা কেটে পড়ছে।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]