জম্মু-কাশ্মীরে জামায়াতকে নিষিদ্ধ করার ফল ভোগ করতে হবে বললেন পিডিপি প্রধান মেহবুবা মুফতি

আমাদের নতুন সময় : 04/03/2019

খন্দকার আলমগীর : সদ্য নিষিদ্ধ হওয়া সংগঠন জামায়াতে ইসলামীর পাশে দাঁড়ালেন জম্মু-কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি। তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের ফল ভুগতে হতে পারে। শনিবার পিপলস ডেমোক্রেটিক পার্টির (পিডিপি) সদর দফতরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে একথা বলেন তিনি। টাইমস অব ইন্ডিয়া
গত ১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামায় হামলার পর কাশ্মীর উপত্যকায় সুরক্ষা বাড়াতে একাধিক পদক্ষেপ নিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। একে একে সেখানকার বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতাদের ব্যক্তিগত নিরাপত্তা প্রত্যাহার করা হয়েছে। জামায়াতে ইসলামীর জম্মু-কাশ্মীর শাখাকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।
এসবের পর কাশ্মীর উপত্যকায় শান্তি ফেরার বদলে অশান্তি আরও বাড়বে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন পিডিপি প্রধান মেহবুবা মুফতি। তিনি বলেন, জামায়াতে ইসলামী সে অর্থে জঙ্গি সংগঠন নয়। এর নির্দিষ্ট সামাজিক এবং রাজনৈতিক আদর্শ আছে। কোনও আদর্শকে এভাবে দমন করা নিন্দনীয়। জামায়াতের তরুণ সদস্যদের গ্রেফতার করে কোনও লাভ হবে না। বরং ওদের প্রতিশোধ স্পৃহা আরও বেড়ে যাবে। আমরা এর তীব্র নিন্দা করছি।
জামায়াতকে দরিদ্রদের বন্ধু উল্লেখ করে তাদের পাশে দাঁড়ালেন জম্মু-কাশ্মীরের এই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। সেই সঙ্গে বিজেপিকে একহাত নিয়ে মুফতি বলেন, আপনাদের সঙ্গে আরএসএস, শিবসেনা, জনসংঘ আছে। যারা কেবলমাত্র মাংসাশী সন্দেহে গণপ্রহার করেন। তাদের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয় না। আর জামায়াত তো উপত্যকায় গরিব মানুষদের সাহায্য করে। স্কুল তৈরি করে ছোট বাচ্চাদের শিক্ষা দেয়। আর তাদেরই আপনারা ধরে ধরে জেলে ঢোকাতে চাইছেন।
তিনি আরও বলেন, যখন চরমপন্থী হিন্দু সংগঠনগুলো দিনের পর দিন ভুল খবর ছড়ায়, তখন কেন্দ্রের টনক নড়ে না। কিন্তু যে সংগঠন নিরলসভাবে কাশ্মীরের জন্য কাজ করছে আজ তাদেরকেই নিষিদ্ধ করা হলো। এর ফল কিন্তু ভয়ঙ্কর হবে। দয়া করে জম্মু-কাশ্মীরকে জেলে পরিণত করবেন না।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]