সৌম্য-মাহমুদউল্লাহ বীরত্বেও ইনিংস পরাজয় এড়াতে পারেনি বাংলাদেশ

আমাদের নতুন সময় : 04/03/2019

শিউলি আক্তার : প্রথম দিনে যে শংকা উঁকি দিয়েছিল সেটা শেষ পর্যন্ত সত্যিই হলো। ইনিংস ব্যবধানে হার এড়ানো সম্ভব হয়নি। ষষ্ঠ উইকেটে রেকর্ড জুটি, সৌম্যের প্রথম ও দেশের সবচেয়ে দ্রুততম টেস্ট শতক, এরপর আবার মাহমুদইল্লাহ রিয়াদও হাঁকালেন শতক। কিন্তু নাহ! কোন কিছুতেই কাজ হয়নি। দুই ইনিংস মিলিয়েও কেন উইলিয়ামসনদের ৭১৫ রান ছোঁয়া হলো না টাইগারদের। হ্যামিল্টনে এক দিন হাতে রেখে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ইনিংস ও ৫২ রানে হেরেছে বাংলাদেশ।
আগের দিনের অপরাজিত দুই ব্যাটসম্যান সৌম্য (৩৯) ও মাহমুদউল্লাহ (১৫) ক্রিজে নেমে ২৩৫ রানের জুটি গড়েন। এই জুটিতে দলকে ইনিংস ব্যবধানে হারের লজ্জা এড়ানোর আশা জাগিয়েছিলো। কিন্তু ট্রেন্ট বোল্টের বলে সৌম্য (১৪৯) ফিরে যাওয়ার পর লিটন (১) ও মিরাজ (১) দ্রুত আউট হয়ে দলকে বিপদে ফেলেন। একপ্রান্তে দাঁড়িয়ে থেকে ক্যারিয়ারের চতুর্থ সেঞ্চুরি ও ব্যক্তিগত সবোর্চ্চ স্কোরটি (১৪৬) করে নিলেও দলকে উদ্ধার করতে পারেননি মাহমুদউল্লাহ।
৪২৯ রানে ৯ম উইকেটে মাহমুদউল্লাহ যাওয়ার পর দলে আর কোন রান যোগ হয়নি। ৪২৯ রানেই গুটিয়ে যায় টাইগাররা। ইনিংস ও ৫২ রানে হারে কিউইদের কাছে। স্বাগতিকদের হয়ে বল হাতে আগুন ঝরান ট্রেন্ট বোল্ট। বোল্ট পাঁচটি, সাউদি তিনটি এবং ওয়াগনার একটি উইকেট নেন।
এর আগে টসে হেরে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ২৩৪ রানে অলআউট হয়ে যায় বাংলাদেশ দল। তামিম ইকবাল সেঞ্চুরি করেন। বাংলাদেশের বিরুদ্ধে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ৬ উইকেটে ৭১৫ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে নিউজিল্যান্ড। অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন ডাবল সেঞ্চুরি করেন। এছাড়া কিউই দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান জিত রাভাল (১৩২) ও টম ল্যাথামও (১৬১) সেঞ্চুরি করেছিলেন। টাইগারদের জন্য ৪৮১ রানের লিড দিয়ে ইনিংস ঘোষনা করেছিলা স্বাগতিকরা। তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে গেলো নিউজিল্যান্ড। আগামী ৮ মার্চ ওয়েলিংটনে দ্বিতীয় টেস্ট শুরু হবে।


সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]