কানাডায় পৌঁছেছেন পাকিস্তানের সেই আসিয়া বিবি

আমাদের নতুন সময় : 09/05/2019

আব্দুর রাজ্জাক : পাকিস্তানে ধর্ম অবমাননার অভিযোগে ‘ব্লাসফেমি’ আইনে মৃত্যুদ- থেকে খালাস পাওয়া খ্রিস্টান নারী আসিয়া বিবি তার দুই মেয়ের কাছে ফিরতেই কানাডায় গেছেন। প্রায় ১ দশক মৃত্যুদ-ের সাজা বয়ে বেড়ানো এই নারীকে আদালত সম্প্রতি খালাস দিলেও প্রাণনাশের হুমকির কারণে তাকে পাকিস্তানে নজরদারিতে রাখা হয়। ডেইলি মেইল

আসিয়া বিবির আইনজীবী সাইফুল মালোক বলেন, ‘তিনি কানাডায় তার মেয়েদের কাছে ফিরেছেন। এটি পরিবারের সঙ্গে পুনর্মিলনের ঐতিহাসিক দিন। আসিয়ার নিরাপত্তা নিশ্চিত হওয়ার মধ্য দিয়ে অবশেষে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা হলো।’

মঙ্গলবার রাতে একটি সূত্র জানায়, গত অক্টোবরে খালাস পাওয়ার পর চূড়ান্তভাবে মুক্তি পেয়েছিলেন বলে আসিয়া মনে করেছিলেন। কিন্তু ফাঁসির দাবিতে মৌলবাদীদের অব্যাহত বিক্ষোভের শিকার হয়ে বিগত কয়েক মাস তিনি মারাত্মক শঙ্কায় ছিলেন বলে মন্তব্য করেছেন।

এ সপ্তাহে রমজান শুরু হয়েছে এবং এই সুযোগটি নিতে দেশ ছাড়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেন আসিয়া বিবি ও তার স্বামী আশিক মসিহ। রমজান শান্তি ও পূনর্মিলনের মাস হিসেবে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান তাদের দেশ ছাড়তে দিতে এই মাসকেই বেছে নিয়েছেন।

৫৩ বছর বয়সী আসিয়া বিবিকে নবী মোহাম্মদ (সাঃ) কে অবমাননার অভিযোগে ২০০৯ সালে আটক এবং ২০১০ সালে মৃত্যুদ- দেয়া হয়। তবে গত অক্টোবরে আদালত তাকে মৃত্যুদ-ের সাজা থেকে খালাস দেয়। আদালতের আদেশের পর পাকিস্তানে ব্যাপক বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে এবং তাকে অব্যাহতভাবে প্রাণনাশের হুমকিও দেয়া হয়।

৭ মাস আগে আসিয়াকে জেল থেকে মুক্তি দেয়া হলেও তাদের ওপর দেশ ত্যাগে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। অব্যাহত হুমকির কারণে সাইফুল মালোক দেশ ছাড়তে পারলেও আসিয়াকে নজরদারির মধ্যে রাখা হয়। তিনি পশ্চিমা রাষ্ট্রগুলোর কাছে আশ্রয় চাওয়ার পর কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো পদক্ষেপ নিলে আসিয়ার দুই মেয়ে সেখানে যায়। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]