একটা পিছলা সুতি শাড়ি

আমাদের নতুন সময় : 25/05/2019

সালাহ্ উদ্দীন পল্লব

: এই চামামা! তুমি এই ফুটপাথে বসে আছো কেন?

: হু…।

: মামা, কী হলো? শরীর খারাপ? এই, কথা বলছো না কেন!

: হু…।

: আরে কি মুশকিল!  দাঁড়াও, রিকশা ডাকি…, মামীকে কল দিয়েছো? তাহলে আগে মামীকে একটা কল…।

: অই মিয়া… অতো ভেজাল কইরেন না তো। বইসা ইট্টু হুশ লইতেছিলাম আর আম্নে মিয়া…।

: আরে, আরে, আরে… কী হয়েছে বলবে তো?

: ঈদের বাজার গেছিলাম আম্নের মামীর জইন্য একটা পিছলা সুতি শাড়ি কিনতে। যাইয়া দেখি একখান সুতি শাড়ির দাম ২২ হাজার ট্যাকা! এইডা কুনো কতা হইলো!

: হা হা হা হা.. আরে মামা এই বাজারে শাড়ির দাম এমনই। তাও তো তুমি কমদামি শাড়ি দেখেছো। কিছু কিছু শাড়ির দামে তো কয়েকটা কোরবানির গরু পাওয়া যাবে!

: এমন শাড়ি কি পিন্দে না পালে?

: আরে ধুর! এগুলো অকেশনালি পড়ে।

: আমি হইলে পালতাম! নাম দিতাম। এত্লা ট্যাকা দিয়া কিনছি… আমার চাওয়া পাওয়া আছে না! এমন শাড়ি নিশ্চয়ই আমার লগে কতা কইবো, আমারে ফুসলাইবো, কোনা-কাঞ্চি উঠাইয়া আমারে ইশারা দিবো, রাইত হইলে আমারে নষ্ট করবো, আর সকাল হইলে কইবো- ‘যাও, বাজার কইরা আইন্যা দেও’!

: হা হা হা হা হা…।

: আম্নের কাছে হাসি লাগতাছে। ২২ হাজার ট্যাকার শাড়ি। যেই ব্যাডা কিইন্ন্যা দিবো হের কপালেও কুনোদিন একলা দেখনের সুযোগ হইবো না। যারে কিইন্ন্যা দিবো হে তো আরো শখানেক মাইন্সেরে দেখানির জইন্য কুনো অনুষ্ঠানে পরবো! আর যে কিইন্ন্যা দিছে হে ঘরে যাওনের আগ পর্যন্ত লুকাইয়া লুকাইয়া দেখবো। তাও দেখবো কুন হালায় নষ্ট চোখে ম্যাডামরে দেখতেছে… শাড়ি দেখনের সুমায় কই!

: মামা! তুমি দেখি নারী বিদ্বেষ কথা বলছো।

: হাছা কতা কইছি মিয়া! এইডি কইলেই তো আমি খ্রাপ। আহা, ২২ হাজার ট্যাকার পিছলা সুতি শাড়ি! তাইলে একখান কাম করলেইতো হয়! আমার বউয়ের পুরান একটা সুতি শাড়ি আছে। ওইডার মইধ্যে ঢেড়স মাখাইয়া পিছলা কইরা ২ হাজার ট্যাকা বেইচ্যা দিতে পারুম না?

: কি যে বলো না! এইটা কি সম্ভব?

: ২২ হাজার ট্যাকার পিছলা সুতি শাড়ি সম্ভব, কোরবানির গরুর দামের সুমন শাড়ি সম্ভব, চোর আর ঋন খেলাপিগো জইন্য নতুন আইন সম্ভব, চোর আরও বড় ভদ্রলোক হইবো সেই ব্যবস্থা সম্ভব তাইলে ঢেড়স মাখাইয়া শাড়ি পিছলা কইরা বেচা সম্ভব না ক্যান?

: আহা তুমি বুঝছো না! এই শাড়ির মেটেরিয়াল তোমাকে বুঝতে হবে, এর পিছনের মানুষের শ্রম বুঝতে হবে, মেধা বুঝতে হবে, কোন এলিট শ্রেণি এটা কিনবে পরবে এসব বুঝে দাম ঠিক করা হয়।

: ধানক্ষেতের মাটির মিটিরিয়াল বুঝেন? যারা ধান চাষ করে হেগো শ্রম বুঝেন? তাগো ক্ষেত নিড়ানির, খেতের যতেœর মেধা বুঝেন? সুমাস্ত শেরেনির লুক এই ধানের চাইল খায় এইডা বুঝেন? তাইলে ধানের মন কেম্নে ৩০০ ট্যাকা হয়? জবাব দেন আমারে! শাড়ি কি ধানের থিকাও বেশি দামি!

: ইয়ে মানে…  বাইরে অনেক গরম মামা, আমি বাসায় গেলাম।

: যান মিয়া যান! জায়গা বেজায়গায় গরম লাগোনের টাইম আইতেছে…।

 


সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]