• প্রচ্ছদ » আমাদের বিশ্ব » পশ্চিমবঙ্গে চিকিৎসকদের আন্দোলনে স্থবির স্বাস্থ্যসেবা, গণপদত্যাগ, ১৭ জুন ভারতজুড়ে ধর্মঘট


পশ্চিমবঙ্গে চিকিৎসকদের আন্দোলনে স্থবির স্বাস্থ্যসেবা, গণপদত্যাগ, ১৭ জুন ভারতজুড়ে ধর্মঘট

আমাদের নতুন সময় : 15/06/2019

আসিফুজ্জামান পৃথিল : চিকিৎসক নির্যাতনের বিরুদ্ধে পশ্চিমবঙ্গে ফুঁসে উঠেছেন চিকিৎসকরা। পুরো রাজ্যেই বন্ধ রয়েছে স্বাস্থ্যসেবা। হাসপাতালে কোনো ধরণের চিকিৎসা পাচ্ছেন না রোগীরা। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি বড় ধরণের বিপাকে পরেছেন। চিকিৎসকরা ছাড়াও বিদগ্ধজন আর বুদ্ধিজীবিরাও মমতার পদত্যাগ চাচ্ছেন।
এদিকে উদ্ভূত পরিস্থিতির জন্য মমতাকেই দায়ী করছে কেন্দ্রীয় সরকার। শুক্রবার পশ্চিমবঙ্গের বাইরে অন্যান্য রাজ্যেও ছড়িয়ে পরেছে আন্দোলন। ১৭ জুন পুরো ভারতজুড়েই ধর্মঘট এবং কর্মবিরতির ঘোষণা দিয়েছেন চিকিৎসকরা। এনডিটিভি, ইয়ন নিউজ, আনন্দবাজার।
১৭ জুন সোমবার সারা ভারতের হাসপাতালগুলিতে ধর্মঘটের ডাক দিল ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (আইএমএ)। চিকিৎসকদের সর্বোচ্চ সংগঠনের তরফে জানানো হয়েছে, জরুরি ও রুটিন পরিষেবা চালু থাকবে। তবে আউটডোর এবং অন্যান্য পরিষেবা বন্ধ থাকবে। ফলে সোমবার সারা দেশেই চিকিৎসা সেবায় ব্যাপক প্রভাব পড়বে। অন্য দিকে শুক্রবারের কর্মবিরতিতে কার্যত সামিল হয়েছে পুরো দেশ। উত্তরপ্রদেশ, অন্ধ্রপ্রদেশ, তেলেঙ্গানা, মহারাষ্ট্র, কেরালা, পাঞ্জাব, বিহার, আসাম-সহ প্রায় সব রাজ্যের মেডিক্যাল কলেজের চিকিৎসকরা নিরাপত্তার দাবিতে আন্দোলনে সামিল হয়েছেন। কোথাও কাজ বন্ধ রেখে আন্দোলন হয়েছে। কোথাও বা রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ মিছিল করেছেন চিকিৎসকরা। ফলে এই সব হাসপাতালে আউটডোর এবং জরুরি পরিষেবা কার্যত বন্ধ।
শুক্রবার দিল্লির এইমস-এর পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার নেয়। কার্যত অবরুদ্ধ থাকে গোটা হাসপাতাল। আউটডোর, জরুরি পরিষেবা থেকে সমস্ত বিভাগে তালা ঝুলিয়ে দেওয়া হয়। হাসপাতালের গেটের বাইরে প্রচুর মানুষ ভিড় জমালেও কেউ সেবা পাননি। এনআরএস এর ঘটনার প্রতিবাদে এ দিন হাসপাতালের রেসিডেন্ট ডর্ক্টস অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে যন্তরমন্তরে একটি মিছিলও বের করা হয়। এ দিনের মিছিলেও চিকিৎসকদের মাথায় ছিল প্রতীকী ব্যান্ডেজ।
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হুঁশিয়ারি এবং কঠোর অবস্থানের জন্যই জুনিয়র ডাক্তাররা ক্রুদ্ধ হয়ে অনড় অবস্থান নিয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন। তাঁর বক্তব্য, যেখানে মুখ্যমন্ত্রীর উচিত ছিল, আন্দোলনকারীদের সঙ্গে কথা বলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা, সেখানে তিনি এমন মন্তব্য করেছেন, যাতে পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়েছে। চিকিৎসকদের আন্দোলনকে ‘প্রেস্টিজ ইসস্যু’ না করার জন্য মুখ্যমন্ত্রীর প্রতি অনুরোধও জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী। একই সঙ্গে চিকিৎসকদের কাছে তাঁর আবেদন, সেবা স্বাভাবিক রেখে প্রতীকী প্রতিবাদ করুন।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]