সুন্দরবনকে বিপন্ন বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকাভুক্তির সুপারিশ

আমাদের নতুন সময় : 16/06/2019

আসিফুজ্জামান পৃথিল : বিশ্ব ঐতিহ্যগুলোর আনুষ্ঠানিক পরামর্শক সংগঠন সুন্দরবনকে বিপন্ন বিশ^ঐতিহ্যের তালিকায় নেওয়ার সুপারিশ করেছে। বাংলাদেশ সুন্দরবনের কাছে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের পরিকল্পনা বহাল রাখায় বিশে^র বৃহত্তম এ ম্যানগ্রোভ বনটি বিপদে পড়তে পারে আশঙ্কায় এ সুপারিশ করা হয়েছে। দ্য কুইন্ট।

২১টি সরকার পরিচালিত বিশ^ ঐতিহ্য কমিটি প্রকৃতি সংরক্ষণের আন্তর্জাতিক ইউনিয়নের (আইইউসিএন) পরামর্শ অনুযায়ী সুন্দরবনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে। আগামী ৩০ জুন থেকে ১০ জুলাই আজারবাইজানে অনুষ্ঠিত হবে বিশ^ ঐতিহ্য কমিটির বার্ষিক বৈঠক। সেখানেই নেওয়া হবে সিদ্ধান্ত।

সুন্দরবনকে রক্ষায় বাংলাদেশ সরকার যেসব অঙ্গীকার করেছিল, তা যথাযথভাবে পূরণ করা হচ্ছে না বলে মনে করে জাতিসংঘের বিজ্ঞান, শিক্ষা ও ঐতিহ্যবিষয়ক সংস্থা ইউনেস্কো। সংস্থাটি বলেছে, সুন্দরবনের বিশ্বঐতিহ্যের সম্মান অটুট রাখতে রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রের কাজ বন্ধ রাখা ও এর চারপাশের শিল্পকারখানার অনুমোদন না দেওয়ার অঙ্গীকার বাস্তবায়নে বাংলাদেশ সরকারের অগ্রগতি খুবই ধীর। অন্যদিকে, সরকার সুন্দরবনের ২০ কিলোমিটারের মধ্যে দুটি কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের কাজ এগিয়ে নিচ্ছে, যা সুন্দরবনের জন্য আরো বড় হুমকি হয়ে দাঁড়াবে।

আজারবাইজানের রাজধানী বাকুতে অনুষ্ঠেয় বার্ষিক সভায় বিশ্বঐতিহ্য কমিটির কাছে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য সুপারিশ হিসেবে ১০৪ পৃষ্ঠার খসড়াটি উপস্থাপন করা হবে। সেখানে সুন্দরবনের বিশ্বঐতিহ্য রক্ষায় বাংলাদেশ সরকারের দেওয়া প্রতিবেদন, বিশ্বঐতিহ্য কমিটির পর্যালোচনা নিয়ে আলোচনা হবে।

১৯৯৭ সালে বাংলাদেশ সরকারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সুন্দরবনকে বিশ্বঐতিহ্যের সম্মান দেয় ইউনেস্কো। কিন্তু তাতে শর্ত ছিল এ বনের জীববৈচিত্রের ক্ষতি হয় এমন কোনো তৎপরতা চালানো যাবে না। শর্ত লঙ্ঘনের কারণে সুন্দরবনের ক্ষতি হলে এর বিশ্বঐতিহ্যের সম্মান চলে যাবে।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]