গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে উপজেলা উপ-সহকারী প্রকৌশলী ও ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে টাকা নেয়ার অভিযোগ

আমাদের নতুন সময় : 17/06/2019

সাবেত আহমেদ : গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলার উপ-সহকারি  প্রকৌশলী আবদুল্লাহ আল মামুন এবং ননিক্ষীর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড সদস্য মো. জাকির শেখের বিরুদ্ধে হত দরিদ্ররে কাছ থেকে  ঘর পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে।

ওই ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে ভুক্তভোগীরা গত বৃহস্পতিবার  লিখিত অভিযোগ করেছে মুকসুদপর উপজেরা নিবার্হী কর্মকর্তা মোসা. তসলিমা আলির কাছে।

তবে ইউপি সদস্য জাকির শেখ হত দরিদ্রদের কাছ থেকে টাকা নেওয়ার কথা স্বীকার করেছে। অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, মুকসুদপুর উপজেলার ননিক্ষীর ইউনিয়নের সদস্য মো. জাকির শেখ ওই ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডে ৩০ হত দরিদ্রের কাছ থেকে ‘জায়গা আছে ঘর নেই প্রকল্পের আওতায় , প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে বরাদ্ধকৃত ঘর এবং উপজেলা থেকে গভীর নলকুপ পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে প্রত্যেকের কাছ থেকে ১৫ হাজার টাকা নিয়েছে। ডিসেম্বর ২০১৮ সালে টাকা নেয়। ছয় মাস অতিবাহিত হয়ে গেলে ভুক্তভোগীরা ওই ইউপি সদস্যকে ঘর এবং গভীর নলকুপ দেওয়ার কথা বললে কালক্ষেপন করতে থাকে। ইউপি সদস্য জাকির শেখ ও উপজেলা উপ-সহকারি প্রকৌশলী আবদুল্লাহ আল মামুন দুইজনে মিলে প্রায় সাড়ে ৪ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

মুকসুদপুর উপজেলার উপ-সহকারি প্রকৌশলী আবদুল্লাহ আল মামুন এ বিষয়ে অস্বীকার করেন। নাম প্রকাশ না করা শর্তে উপজেলার এক কর্মকর্তা বলেন, এই উপজেলার উপ-সহকারি প্রকৌশলী মামুনের নামে অনেক অভিযোগ আছে। সে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন কাজের অযুহাতে ইউপি সদস্য ও চেয়ারম্যানদের কাছ থেকে টাকা নিয়েছে। আবার কয়েকবার এই টাকা নেওয়ার কথা প্রকাশ হয়ে গেলে সেই টাকা ফেরতও দিয়েছে। মুকসুদপুর উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা তসলিমা আলি বলেন, আমার কাছে এবিষয়ে একটি অভিযোগ এসেছে এবং এ বিষয়ে তদন্ত করা হচ্ছে প্রমাণিত হলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সম্পাদনা : বাহাউদ্দিন




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]