আগামী ১০০ বছর ধারণার চেয়ে দ্রুত বাড়বে সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা, জাতিসংঘের হুঁশিয়ারি

আমাদের নতুন সময় : 25/09/2019


আসিফুজ্জামান পৃথিল : অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই নিউইয়র্ক ও সাংঘাইয়ের মতো মহানগরীগুলো নিয়মিত বন্যার শিকার হবে। হিমালয় এবং অ্যান্টার্টিকার বরফ গলনের হার ধারণার চেয়েও বেশি হওয়ায় এই ঘটনা খুব শ্রীঘ্রই চাক্ষুস করতে হবে মানুষকে। জাতিসংঘের ইন্টারগর্ভমেন্টাল প্যানেল ফর ক্লাইমেট চেঞ্জ – আইপিসিসির নতুন প্রকাশিত প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে। সিএনএন, বিবিসি।
৩৬ টি দেশের শতাধিক বিজ্ঞানী এই প্রতিবেদন তৈরী করেছেন। এই প্রতিবেদনের নাম, ‘জলবায়ু পরিবর্তনে মহামাগরের উপর প্রভাব বিষয়ক বিশেষ প্রতিবেদন’। এই জরুরী প্রতিবেদনটি বলছে, বৈশি^ক তাপমাত্রা ১.৫ ডিগ্রির মধ্যে রাখার জন্য বিশে^র হাতে শুধুমাত্র ২০২০ সাল পর্যন্ত সময় আছে। আইপিসিসির প্রধান চেয়ার কো ব্যঅরেট এই বিষয়ে বলেন, ‘এই প্রতিবেদনটি একটু ভিন্নরকম কারণ এই প্রথম কোনো প্রতিবেদনে বিশে^র সর্বোচ্চ রপর্বত ও দক্ষিণ মেরুর বরফ গলনের হার বিবেচনায় নেয়া হয়েছে। এই অতি দূরবর্তী এলাকাগূলোতেও মানবসৃষ্ঠ জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব ব্যাপক। ’
এই প্রতিবেদন বলছে, সামনের বছরগুলোতে জলবায়ু পরিবর্তন ঠেকানো না গেলে পরিস্থিতি আরো খারাপ হবে। গ্রীনল্যান্ড থেকে অ্যান্টার্টিকা। সারা বিশে^র হিমবাহ ও আইস শিটগুলো গলে যাচ্ছে। গ্রীনল্যান্ডের আইসশিট প্রতি বছর ২৬০ গিগাটন বরফ হারাচ্ছে। এর চেয়েও বেশি বরফ হারাচ্ছে অ্যান্টার্টিকা। পিছিয়ে রেই তৃতীয় মেরু বলে পরিচিত হিমালয়-কারাকোরাম বেল্টও। এই অঞ্চলের বরফ গলার কারণে সিন্ধু, গঙ্গা, ব্রহ্মপুত্রের ভাটি অঞ্চলে নিয়মিত বন্যা হবে। নিয়মিত ক্ষতিগ্রস্থ হবে কলকাতা, করাচি, ঢাকার মতো মহানগরীগুলো। নিয়মিত বন্যায় আক্রান্ত হবে নিউইয়র্ক, সাংহাই, টোকিও। সম্পাদনা : ইকবাল খান


সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]


Warning: preg_match(): Unknown modifier 'n' in /home/asnotun/public_html/newsite/wp-includes/template-loader.php on line 106