মৎস্যজীবী লীগের সম্মেলন আজ

আমাদের নতুন সময় : 29/11/2019

ইউসুফ বাচ্চু : এই প্রথম সংগঠনটির জাতীয় সম্মেলন হতে যাচ্ছে। রাজধানীর খামারবাড়ির কৃষিবিদ ইন্সটিটিউশন মিলনায়তনে ওই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এতে প্রধান অতিথি থাকবেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।সম্মেলনের সার্বিক প্রস্তুতি শেষ করেছে সংগঠনটি। এবারের সম্মেলনের মাধ্যমে দিয়ে আওয়ামী লীগ সহযোগী/ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়ায় কথা রয়েছে মৎস্যজীবী লীগের। এ নিয়ে নেতা-কর্মীদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা রয়েছে। সম্মেলনকে ঘিরে পদ প্রত্যাশী নেতারাও উজ্জীবিত। শীর্ষ পদে আসতে জোর তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন তারা। সংগঠনের নেতা-কর্মীরা বলছেন, সংগঠনের দক্ষ-ত্যাগী ও নতুন নেতৃত্ব চান তারা।
এ বিষয়ে সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব শেখ আজগর নস্কর বলেন, গত ২০০৪ সালে মৎস্যজীবী লীগের প্রতিষ্ঠাকালীন থেকে সহ-সভাপতি ও কার্যকরী সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালনের পর সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছি। ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মৎস্যজীবী লীগকে সহযোগী সংগঠনের স্বীকৃতি দেয়ায় সারা দেশের নেতা-কর্মীরা ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা নিয়ে সম্মেলন সফল করতে কাজ করছে। সম্মেলন সফল করতে কেন্দ্রে ৮ টি উপকমিটি এবং সকল বিভাগীয় সাংগঠনিক টিম প্রয়োজনীয় সকল কাজ

পালনের পর সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছি। ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মৎস্যজীবী লীগকে সহযোগী সংগঠনের স্বীকৃতি দেয়ায় সারা দেশের নেতা-কর্মীরা ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা নিয়ে সম্মেলন সফল করতে কাজ করছে। সম্মেলন সফল করতে কেন্দ্রে ৮ টি উপকমিটি এবং সকল বিভাগীয় সাংগঠনিক টিম প্রয়োজনীয় সকল কাজ শেষ করে এনেছে। এতে উপস্থিত হবেন প্রায় ২৫ হাজার কাউন্সিলর, ডেলিগেড ও অতিথি।
সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির যুগ্ম আহবায়ক মোহাম্মদ ইউনুস বলেন, সংগঠনটিকে নির্দিষ্ট লক্ষ্যে নিয়ে যাওয়ার জন্য সংগঠনের বাইরে ডুমুরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও তৎকালীন মৎস্য প্রতিমন্ত্রীকে এনে আমরা ২০১৬ সালে সভাপতির হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয়। কিন্তু নেতাকর্মীদের আশার প্রতিফলন ঘটেনি।
সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক নারায়ণ চন্দ্র চন্দ বলেন, সম্মেলনের প্রস্তুতি সব শেষ হয়েছে। এবারই সংগঠনের সম্মেলন বড় আকারে হচ্ছে।
সংগঠন সূত্রে জানা গেছে, এর আগে সংগঠনটির ৪ বার সম্মেলন হলেও তা জাতীয় সম্মেলন হিসাবে হয়নি। তবে আসছে শুক্রবার সংগঠনটির ৫ম সম্মেলনটি জাতীয় সম্মেলন হিসেবে হতে যাচ্ছে। সংগঠনটি আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন হিসেবে না থাকলেও রাজপথে ছিল সক্রিয়।
আওয়ামী লীগ সূত্র জানায়, দেশের প্রায় ২ কোটি মানুষ মৎস্য উৎপাদন, পরিবহন ও বিপণনের সঙ্গে সম্পৃক্ত। এ খাত থেকে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা আয় হয়। পাশাপাশি সমুদ্রসীমা বিজয় ওব্লু ইকোনমিসহ সার্বিক বিষয় মাথায় রেখেই মৎস্যজীবী লীগকে আলাদা গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে আপাতত ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের মর্যাদা দেয়ার কথা ভাবা হচ্ছে। সম্পাদনা : খালিদ আহমেদ


সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]