[১]ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম বর্ণবাদী প্রেসিডেন্ট: জো বাইডেন

আমাদের নতুন সময় : 24/07/2020

লিহান লিমা : [২] আগামী নভেম্বরের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ডেমোক্রেট দলীয় প্রার্থী জো বাইডেন বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র ডেমোক্রেট ও রিপাবলিকান অনেক প্রেসিডেন্ট দেখেছে। কিন্তু ডোনাল্ড ট্রাম্পের মতো সরাসরি বর্ণবাদী প্রেসিডেন্ট আর কখনোই দেখেনি। তার হাত ধরেই যুক্তরাষ্ট্রে পুনরায় বর্ণবাদ মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। ইয়ন।
[৩] বাইডেন আরও অভিযোগ করেন, ট্রাম্প গায়ের রং, জাতীয়তা এবং দেশ দিয়ে মানুষকে বিচার করেন। আপনারা জানেন, ক্ষমতায় এসে ৭টি মুসলিম দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দিয়ে তিনি নির্বাহী আদেশ জারি করেছিলেন। এখন তিনি করোনাভাইরাসকে ‘চীনা ভাইরাস’ বলে অভিহিত করেছেন। মহামারী নিয়ন্ত্রণে নিজের অক্ষমতা ঢাকতে তিনি জাতিগত বিদ্বেষ বেছে নিয়েছেন। প্রেসিডেন্ট ঐক্যবদ্ধ অ্যামেরিকা নয়, বিভেদের দেশ গড়ে তুলেছেন। [৪] এই সময় বাইডেন প্রতিশ্রুতি দেন, ক্ষমতায় এলে প্রথম ১০০দিন কাঠামোগত বর্ণবাদের সংষ্কার করবেন তিনি। সেই সঙ্গে ট্রাম্পের অভিবাসন নীতি বদলে সেটি মুসলিম সম্প্রদায়ের জন্য সহজ করবেন। [৫] এদিকে জো বাইডেনের সমালোচনার জবাবে ট্রাম্প বলেন, একমাত্র আব্রাহাম লিঙ্কন ব্যতীত অন্য যে কোনো মার্কিন প্রেসিডেন্টের চাইতে আমি কৃষ্ণাঙ্গ আমেরিকানদের জন্য অনেক কিছু করেছি। [৬] ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারণা শিবিরের উপদেষ্টা ক্যাটরিনা পিয়ারসন বলেন, বাইডেনের মন্তব্য মনগড়া। ডোনাল্ড ট্রাম্প কখনোই বিভেদের রাজনীতি করেন নি। এপি। [৭] বিশ্লেষকরা বলছেন, করোনাকে প্রেসিডেন্টের ‘চীনা ভাইরাস’, ‘উহান ভাইরাস’, কখনও ‘কুং ফু’ বলে অভিহিত করায় যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারী এশিয়ার মানুষ, বিশেষত মঙ্গোলয়েড চেহারার মানুষ হয়রানি ও বিদ্বেষের শিকার হচ্ছেন। ডয়েচে ভেলে। সম্পাদনা: ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]