• প্রচ্ছদ » আমাদের বাংলাদেশ » [১]পাকিস্তানের প্রথম মুসলিম নোবেলজয়ী আবদুস সালামের জন্মদিন পালিত হয় না [২]এ নিয়ে নির্মিত হচ্ছে ডকুমেন্টরি


[১]পাকিস্তানের প্রথম মুসলিম নোবেলজয়ী আবদুস সালামের জন্মদিন পালিত হয় না [২]এ নিয়ে নির্মিত হচ্ছে ডকুমেন্টরি

আমাদের নতুন সময় : 29/12/2020

দেবদুলাল মুন্না:[২] এটি তৈরি করছে নেটফ্লিক্স। এর আগে গতবছর ডকুমেন্টারি তৈরি করা হয়েছিল। কিন্তু বেশকিছু সমালোচনার কারণে ফের নতুন কিছু তথ্য যোগ-বিয়োগের মাধ্যমে আবার তৈরি করা হচ্ছে। এ তথ্য বিবিসি ও কাউন্টার পাঞ্চের। [৩] চলচ্চিত্র প্রযোজক জাকির থাভের টেকনেটডট চ্যানেলকে গতকাল বলেন, সালাম ছিলেন প্রথম মুসলিম, যিনি নোবেল জয় করেছিলেন। তার জন্মদিন ২৯ ডিসেম্বর পালিত হলেও তার নাতি আবদুস কুতুবের দাবি তিনি জন্মেছিলেন ২৯ জানুয়ারি। এছাড়া আগের ডকুমেন্টারিতে পাকিস্তানে যে তার এপিটাফ থেকে নাম মুছে ফেলা হয়েছিল এ তথ্য নতুনভাবে তুলে ধরা হচ্ছে। [৪] মুভিটিতে আবদুস সালামের তিনটি বিষয় উঠে এসেছে: তার পদার্থবিদ্যা, তার বিশ্বাস এবং তার জাতীয়তা। নাম এখনও চূড়ান্ত করা হয়নি। [৫] আবদুস সালাম ১৯৭৭ সালে জন্মগ্রহন করেন। ১৯৭৪ সালে পাকিস্তানের সংসদ আহমেদিয়া সম্প্রদায়কে অমুসলিম হিসাবে সরকারিভাবে ঘোষণা করলে ডঃ আবদুস সালাম বিট্রেনে চলে যান স্বেচ্ছা নির্বাসনে। মুশকিল হয় যখন ১৯৭৯ সালে আবদুস সালাম নোবেল পুরস্কার পেয়ে বসেন। ১৯৯৬ সালে অক্সফোর্ডে মারা যান সালাম। কবর হয় পাকিস্তানের রাবওয়া শহরে। [৬] সালামের কবরের এপিটাফে লেখা ছিল, ‘ফার্স্ট মুসলিম নোবেল লরিয়েট’। সালামের মৃত্যুর দু’ বছর পরে এই এপিটাফটিও রেহাই পায়নি। স্থানীয় এক ম্যাজিস্ট্রেটের নির্দেশে মুছে ফেলা হয় ‘মুসলিম’ শব্দটি। এপিটাফের শূন্যস্থানে এখন কেবলই লেখা রয়েছে, ‘ফার্স্ট নোবেল লরয়েট’। সম্পাদনা : রাশিদ




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]