• প্রচ্ছদ » আমাদের বাংলাদেশ » [১]মারা গেছেন শতবর্ষী ব্রিটিশ ক্যাপ্টেন স্যার টম মুর [২]দ্বিতীয় বিশ^যুদ্ধের বীর সেনানী জীবনের শেষ প্রান্তে হয়ে ওঠেন কোভিড মহাযুদ্ধের মহানায়ক


[১]মারা গেছেন শতবর্ষী ব্রিটিশ ক্যাপ্টেন স্যার টম মুর [২]দ্বিতীয় বিশ^যুদ্ধের বীর সেনানী জীবনের শেষ প্রান্তে হয়ে ওঠেন কোভিড মহাযুদ্ধের মহানায়ক

আমাদের নতুন সময় : 04/02/2021

রাশিদুল ইসলাম: [৩] ‘যদি আগামী কাল আমার শেষ দিন হয়, সেটাও সবচেয়ে ভালো একটি দিন হবে…আমি প্রত্যেককে দেখতে পাই, যাকে চিরদিন ভালবাসি তাকেও।’ এমন উদ্দীপনামূলক কথার জন্য তিনি অমর হয়ে থাকবেন। আত্মঘাতী যুদ্ধ মিশন থেকে শুরু করে অপ্রত্যাশিত প্রেমের গল্প, ব্রিটেনের নাগরিকদের কাছে তার অনুপ্রেরণামূলক জীবন যেনো কিংবদন্তী। ডেইলি মেইল
[৪] কোভিড মহামারি শুরুর পর ব্রিটেনের স্বাস্থ্যবিভাগের জন্যে তহবিল সংগ্রহ করতে ক্যাপ্টেন মুর তার বাগানের চারপাশে হেঁটে বিশ^বাসী নজর কাড়েন। সংগ্রহ হয় ৩৮.৯ মিলিয়ন পাউন্ড যা ৪ কোটি ডলারেরও কিছু বেশি। [৫] ১৯৪০ সালে ২০ বছর বয়সে ব্রিটিশ সেনাবাহিনীর ডিউক অফ ওয়েলিংটন রেজিমেন্টে পদাতিক সেনা হিসেবে যোগ দেন টম। এরপর কমিশন পান। দ্বিতীয় বিশ^যুদ্ধে তিনি ভারত ও মিয়ানমারে যুদ্ধ করেছেন। সেই অভিজ্ঞতা বর্ণনা করে তিনি বলেছিলেন, ‘মটরসাইকেলের গর্জনে আড়ালে জঙ্গলে ওঁত পেতে থাকা শত্রæ কতটা ঘনিষ্ঠ হতে পারে সে সম্পর্কে খুব বেশি চিন্তা না করার চেষ্টা করেছি।’ [৬] গত বছর জুলাইতে উইন্ডসর ক্যাসেলে রানি এলিজাবেথ নিজ হাতে তাকে নাইট পদক তুলে দেন। এসময় তার সম্মানে ফ্লাইপাস্ট করে ব্রিটিশ বিমানবাহিনী। [৭] ক্যাপ্টেন মুরের মৃত্যুতে হোয়াইট হাউস শোক ও সমবেদনা জ্ঞাপন করেছে। সম্পাদনা: সালেহ্ বিপ্লব


সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]