• প্রচ্ছদ » আমাদের বিশ্ব » [১]আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন বারাদার, ভাইস প্রেসিডেন্ট মোল্লাহ্ ইয়াকুব [২]তাজিকিস্তানে ঠাঁই না পেয়ে ঘানি গেছেন ওমানে [৩]কাবুল বিমানবন্দরে হুড়োহুড়ি, নিহত ৫


[১]আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন বারাদার, ভাইস প্রেসিডেন্ট মোল্লাহ্ ইয়াকুব [২]তাজিকিস্তানে ঠাঁই না পেয়ে ঘানি গেছেন ওমানে [৩]কাবুল বিমানবন্দরে হুড়োহুড়ি, নিহত ৫

আমাদের নতুন সময় : 17/08/2021

আসিফুজ্জামান পৃথিল: [৪] আনুষ্ঠানিক ঘোষণা না এলেও প্রায় নিশ্চিতভাবেই বলা হচ্ছে তালিবানের ডেপুটি প্রধান (রাজনীতি) মোল্লাহ্ আব্দুল গনি বারাদার নতুন আফগান প্রেসিডেন্ট হবেন। তবে দেশের নিয়ন্ত্রণ থাকবে ‘আমিরুল মুমিনিন’ মাওলাউই হিবাতুল্লাহ আকুন্দজাদার হাতে। ভাইস প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পেতে পারেন মোল্লা ওমরের ছেলে ও সামরিক সর্বাধিনায়ক ইয়াকুব। গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পেতে পারেন হাক্কানি নেটওয়ার্কের প্রধান সিরাজউদ্দিন হাক্কানি। বিবিসি।

[৫] প্রধান কাজির দায়িত্ব পেতে পারেন মোল্লাহ্ আবদুল হাকিম। নতুন সরকার চালাবে মূলত ২৬ সদস্যের রাহবারি সুরা। মোট ১৭টি কমিশন কাজ করবে দেশটিতে। এরমধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো সামরিক, গোয়েন্দা, রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক কমিশন। এনবিসি।

[৬] আফগানিস্তান ছেড়ে তাজিকিস্তানে আশ্রয় না পেয়ে সাবেক প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি। বিমান ঘুরিয়ে ওমান পৌঁছেছেন তিনি। ওমান সরকার তাকে আশ্রয় দিতে রাজি হয়েছে কি না, তা নিশ্চিতভাবে জানা যায়নি। তবে সোমবার পর্যন্ত ওমানেই রয়েছেন। একসময় আমেরিকার নাগরিকত্ব ছিল ঘানির। রয়টার্স।

[৭] জাতির উদ্দে্েয দেওয়া এক ভিডিও ভাষণে তালেবানের উপ-প্রধান নেতা মোল্লা বারাদার বলেছেন, এখন সময় হয়েছে আফগানিস্তানের মানুষের সেবা আর তাদের জীবনমান উন্নয়ন করার। তিনি বলেন, জাতিকে আমরা সবচেয়ে ভ ভালো সেবা দেবো, পুরো জাতির জন্য প্রশান্তি নিয়ে আসবো। তাদের জীবনমানের উন্নয়নের জন্য যতদূর যা করা দরকার, আমরা তাই করবো। যেভাবে আমাদের এখানে আসতে হয়েছে, তা কাক্সিক্ষত ছিল না। সেই সঙ্গে আজ আমরা যে অবস্থানে পৌঁছেছি, তাও কেউ ভাবেনি।

[৮] আফগান নারী অধিকারকর্মী মাহবুবা সেরাজ দাবি করেছেন, নারীদেরও সরকার ব্যবস্থায় যুক্ত করতে হবে। তিনি বলেন, এমনটা হলে, তার তালেবানদের সঙ্গে কাজ করতে আপত্তি নেই। বেশ কিছু গণমাধ্যমের দাবি, গ্রামীণ এলাকাগুলোতে ইতোমধ্যেই নারীর উপর সহিংসতা বাড়তে শুরু করেছে।

[৯] কাবুলের হামিদ কারজাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে পাঁচজনের মরদেহ একটি গাড়িতে তোলা হয়েছে বলে একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান। তবে গোলাগুলিতে, নাকি হুড়োহুড়িতে পদপিষ্ট হয়ে তাঁদের মৃত্যু ঘটেছে, সেটা পরিষ্কার নয় বলে জানিয়েছেন অপর একজন। রয়টার্স।
[১০] রোববার তালেবানদের কাবুল দখলের পর থেকেই জনস্রোত উপচে পড়ে কাবুল বিমানবন্দরে। আতঙ্কে দেশ ছাড়তে যেকোনো উপায়ে উড়োজাহাজে উঠতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন শহরের বাসিন্দারা। লোকজনের চাপ সামলাতে সেখানে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা মার্কিন সেনারা ফাঁকা গুলি চালিয়েছে বলে রয়টার্সকে জানান মার্কিন এক কর্মকর্তা।
[১১] কাবুল বিমানবন্দরে মানুষের ভিড়ের একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। দেখা যায়, বিমানবন্দরের টারমাকে দাঁড়িয়ে আছে একটি উড়োজাহাজ। উড়োজাহাজটিতে উঠতে শত শত মানুষের মধ্যে হুড়োহুড়ি পড়ে গেছে। সবাই উড়োজাহাজে উঠতে বেপরোয়া। বিমানে ওঠার সিঁড়ি লোকে লোকারণ্য। কার আগে কে আগে উঠবেন, তা নিয়ে সিঁড়িতে চলছিল ধাক্কাধাক্কি। সম্পাদনা: হাসান হাফিজ




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]