• প্রচ্ছদ » » হায়রে কক্সবাজার তোকে জানা হলো না


হায়রে কক্সবাজার তোকে জানা হলো না

আমাদের নতুন সময় : 25/09/2021

সংগৃহিত: যে মানুষটার নাম দিয়ে আজ কক্সবাজার, সেই ক্যাপ্টেন হিরাম কক্সের বাংলোটা বছরের পর বছর পড়ে আছে কোনোরকম অবহেলায় দাঁড়িয়ে। মেহগনি গাছের শীতল ছায়াঘেরা লাল টিনের ঐতিহাসিক এই ‘বাংলোবাড়িটি’ ইংরেজ ক্যাপ্টেন ‘হিরাম কক্স’- এর বাংলো, যার বয়স এখন ২২০ বছর। যাঁর নামে এখন এই কক্সবাজার জেলা সরকারিভাবে চাইলে একটু সংস্করণ করে, এতোটুকু সম্মানকি এই মানুষটাকে দেওয়া যেত না? কয়েকটি প্রতিবেদন দেখে মনটা খারাপ হয়ে গেলো ১৭৮৪ সালের দিকে আরাকান দখল করে নিয়েছিলেন বার্মার রাজা বোধাপায়া। রাজার আক্রমণ থেকে বাঁচতে প্রায় ১৩ হাজার আরাকানি এদিকে চলে আসে, আশ্রয় নেয় পালংকীতে। বলে রাখি, কক্সবাজারের প্রাচীন নাম কিন্তু পালংকী। সমুদ্র ও জঙ্গলঘেরা পালংকীতে আশ্রিত লোকজনকে পুনর্বাসনের জন্য ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি ক্যাপ্টেন হিরাম কক্সকে সেখানে নিয়োগ দিয়েছিলো। হিরাম কক্স পালংকী এলাকায় প্রতিষ্ঠা করেন একটি বাজার। প্রথম প্রথম এ বাজার ‘কক্স সাহেবের বাজার’ নামে পরিচিত ছিলো। পর্যায়ক্রমে ‘কক্স-বাজার’ এবং ‘কক্সবাজার’ নামের উৎপত্তি ঘটে। জায়গাটি ‘প্যানোয়া’ নামেও পরিচিত। ‘প্যানোয়া’ শব্দের অর্থ ‘হলুদ ফুল’। তখন কক্সবাজার হলুদ ফুলের রাজ্য ছিলো।হিরাম কক্স তো দায়িত্ব নিয়েছিলেন শরণার্থী পুনর্বাসনের। কিন্তু তাকে তো রাত যাপন করতে হবে, করতে হবে দাপ্তরিক কাজ। এ জন্যই রামুতে নির্মিত হয় এই বাংলোবাড়ি। ইংরেজ ক্যাপ্টেন কক্স সাহেবের বাংলো।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]