• প্রচ্ছদ » » ওস্তাদ আয়েত আলী খাঁ’র সন্তান উচ্চাঙ্গ সঙ্গীতশিল্পী, সুরকার ও সরোদ বাদক ওস্তাদ বাহাদুর হোসেন খানের প্রয়াণ দিবস আজ, ‘তিতাস একটি নদীর নাম’ চলচ্চিত্রের সুর ও সংগীত পরিচালনা করেছিলেন তিনি


ওস্তাদ আয়েত আলী খাঁ’র সন্তান উচ্চাঙ্গ সঙ্গীতশিল্পী, সুরকার ও সরোদ বাদক ওস্তাদ বাহাদুর হোসেন খানের প্রয়াণ দিবস আজ, ‘তিতাস একটি নদীর নাম’ চলচ্চিত্রের সুর ও সংগীত পরিচালনা করেছিলেন তিনি

আমাদের নতুন সময় : 03/10/2021

মাসুদ হাসান: বাহাদুর হোসেন খানের জন্ম ১৯৩১ সালের ১৯ জানুয়ারি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার শিবপুর গ্রামের। তার পিতা ওস্তাদ আয়েত আলী খাঁ ও মাতা উমর উন- নেসা। পরিবারের ঐতিহ্য অনুযায়ী শৈশব থেকে সঙ্গীত সাধনায় মগ্ন হন তিনি। পিতার হাতেই তার সরোদের হাতেখড়ি হয়। সঙ্গীতে উচ্চশিক্ষার জন্য তার পিতা তাকে মাইহারে নিয়ে যান। সেখানে তিনি তার চাচা আলাউদ্দিন খাঁর নিকট দীর্ঘ ২০ বছর সরোদের তালিম গ্রহণ করেন। ১৯৪৯ সালে তিনি বাংলাদেশ বেতারের শিল্পী হিসেবে যোগ দেন। সেখানে দুই বছর থাকার পর ১৯৫১ সালে বম্বে চলে যান। সেখানে তিনি নৃত্যশিল্পী শান্তি বর্মণের ‘লিটল ব্যালে ট্রুপ’-এর সঙ্গীত পরিচালকের দায়িত্ব গ্রহণ করেন। ১৯৬০ সালে ঋত্বিক ঘটক পরিচালিত ‘মেঘে ঢাকা তারা’ চলচ্চিত্রে জ্যোতিরিন্দ্র মিত্রের সহকারী সঙ্গীত পরিচালকের দায়িত্ব পালন করেন।
১৯৬৫ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘সুবর্ণ রেখা’ দিয়ে চলচ্চিত্রের সঙ্গীত পরিচালনা শুরু করেন। সুর ও সঙ্গীত পরিচালনায় উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রসমূহ হলো:, ‘ত্রিসন্ধ্যায়’, ‘যেখানে দাঁড়িয়ে’, ‘শ্বেত ময়ূর’, ‘তিতাস একটি নদীর নাম’ (১৯৭৩), ‘গার্ম হাওয়া’ (১৯৭৪), ‘যুক্তি তক্কো আর গপ্পো’ (১৯৭৪), ‘অমাবস কি চান্দ’ (১৯৭৯)। তিনি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, ওস্তাদ আলাউদ্দিন খাঁ,ও যামিনী রায়ের ওপর নির্মিত প্রামাণ্য চিত্রের আবহ সঙ্গীত পরিচালনা করেন। ১৯৮৯ সালে ৩ অক্টোবর তিনি মৃত্যুবরণ করেন।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]