• প্রচ্ছদ » » পন্ডিত বারীণ মজুমদারের প্রয়াণ দিবস আজ, আগ্রা ও রঙ্গিলা ঘরানার যোগ্য উত্তরসাধক হিসেবে তাঁকে আখ্যায়িত করা হয়


পন্ডিত বারীণ মজুমদারের প্রয়াণ দিবস আজ, আগ্রা ও রঙ্গিলা ঘরানার যোগ্য উত্তরসাধক হিসেবে তাঁকে আখ্যায়িত করা হয়

আমাদের নতুন সময় : 03/10/2021

আমিরুল ইসলাম : পন্ডিত বারীণ মজুমদার ১৯২১ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি ব্রিটিশ ভারতের বেঙ্গল প্রেসিডেন্সির (বর্তমান বাংলাদেশ) পাবনা জেলার রাধানগরে এক জমিদার পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা নিশেন্দ্রনাথ মজুমদার ছিলেন একজন সঙ্গীতশিল্পী ও নাট্যকার এবং মাতা মণিমালা মজুমদার সেতার বাজাতেন। বারীণ মজুমদারের স্ত্রী ইলা মজুমদার। তিনি একজন উচ্চাঙ্গ সঙ্গীতশিল্পী ছিলেন। তাদের দুই সন্তান। বড় পুত্র পার্থ মজুমদার একজন সঙ্গীত পরিচালক এবং ছোট পুত্র বাপ্পা মজুমদারও একজন সঙ্গীতশিল্পী ও সঙ্গীত পরিচালক। পন্ডিত বারীণ মজুমদার একজন সঙ্গীত-অধ্যক্ষ, রাগসঙ্গীত বিশারদ ও উচ্চাঙ্গ সঙ্গীতশিল্পী ছিলেন।
সঙ্গীতে অবদানের জন্য তমঘা-ই-ইমতিয়ায (১৯৭০), একুশে পদক (১৯৮৩), বরেন্দ্র একাডেমির সংবর্ধনা (১৯৮৩), কাজী মাহবুবউল্লাহ জনকল্যাণ ট্রাস্ট পুরস্কার (১৯৮৮), সিধু ভাই স্মৃতি পুরস্কার (১৯৯০), বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি থেকে গুণীজন সম্মাননা (১৯৯১), জাতীয় রবীন্দ্রসঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ থেকে রবীন্দ্র পদক (১৯৯৩), বেতার টেলিভিশন শিল্পী সংসদ থেকে ‘শিল্পী শ্রেষ্ঠ’ খেতাব (১৯৯৫), বাংলা একাডেমি ফেলোশিপ (১৯৯৭), জনকণ্ঠ গুণীজন সম্মাননা পদক (১৯৯৮), এদেশের সঙ্গীতে অসাধারণ অবদানের জন্য ২০০২ সালে দেশের ‘সর্বোচ্চ বেসামরিক পুরস্কার’ ‘স্বাধীনতা পুরস্কার’ প্রদান করা হয় তাঁকে। ২০০১ সালের ৩ অক্টোবর মারা যান তিনি।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]