• প্রচ্ছদ » আমাদের বাংলাদেশ » [১]মুজিব পরিকল্পনা নামে বিশে^র প্রথম জলবায়ু সমৃদ্ধি পরিকল্পনা বাংলাদেশে, বিশ্বের সব দেশেরই এটি অনুসরণ করা উচিত: শেখ হাসিনা


[১]মুজিব পরিকল্পনা নামে বিশে^র প্রথম জলবায়ু সমৃদ্ধি পরিকল্পনা বাংলাদেশে, বিশ্বের সব দেশেরই এটি অনুসরণ করা উচিত: শেখ হাসিনা

আমাদের নতুন সময় : 20/10/2021

আসিফুজ্জামান পৃথিল: [২] ফিনানশিয়াল টাইমসে লেখা এক কলামে জলবায়ু পরিবর্তনজনিত সমস্যা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন গুরুত্বপূর্ণ অনেক কথা। [৩] বাংলাদেশ শূণ্য কার্বন ভবিষ্যতকে সামনে রেখে বিনিয়োগ শুরু করেছে। তিনি দাবি করেন, বিশ্বকে অবশ্যই কপ-২৬ এ বাংলাদেশের মতো উদ্যোগ নিতে হবে। [৪] বাংলাদেশের মতো দেশগুলোকে নিরাপদে রাখতে দ্রুত কার্বন নি:সরণ কমাতে হবে, অন্য দেশগুলো যা করছে না।
[৫] উত্তরবঙ্গের কোটি কোটি মানুষ হিমালয়ের আইসফিল্ডে জমাট বরফ থেকে আসা পানির উপর নির্ভরশীল। উষ্ণ আবহাওয়া এসব আইসফিল্ড গলিয়ে ফেলছে। [৬] দক্ষিণে সাগরের উচ্চাতা বৃদ্ধির কারণেও এদেশের বিপুল এলাকা ডুবে যাচ্ছে। [৭] বাংলাদেশি কার্বন নি:সরণের কারণে বৈশি্বক তাপমাত্রা খুব সামান্যই বাড়ে। তবুও বাংলাদেশ এটুকুও কমিয়ে ফেলায় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। শূণ্য কার্বনের দিকে এগুলোয় নতুন কর্মক্ষেত্র তৈরি হবে, যা অর্থনীতির জন্যও ভালো। [৮] এ বছর সরকার ১০টি কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্প বাতিল করেছে। তবে এটিও আসলে ছোট পদক্ষেপ। [৯] বাংলাদেশ বিশ্বর প্রথম দেশ যারা জাতীয় জলবায়ু সমৃদ্ধি পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। এর আওতায় সক্ষমতা বৃদ্ধি, অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি, নতুন কাজ সৃষ্টি এবং নাগরিকদের জন্য নতুন সুযোগ তৈরি করা হবে। [১০] এই দশকের শেষ নাগাদ দেশের চাহিদার ৩০ শতাংশ বিদ্যুৎ পাওয়া যাবে নবায়ণযোগ্য উৎস থেকে। [১১] বাংলাদেশ বিশ্বাস করে, উপকূলজুড়ে উইন্ড ফার্ম নির্মান করলে ম্যানগ্রোভ রক্ষার পাশাপাশি উপক’ল সরে যাওয়া ঠেকানো যাবে। রক্ষা পাওয়া যাবে ঝড়-জলোচ্ছোস থেকে। [১২] নিজেদের তৈরি এই পরিকল্পনা বিশে^র সব দেশকে বিনা পয়সায় দিয়ে সহায়তা করতে রাজি আছে বাংলাদেশ। তবে শর্ত একটাই বিশ্বকে অবশ্যই প্যারিস জলবায়ু চুক্তি মেনে চলতে হবে।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]