• প্রচ্ছদ » » এই সাম্প্রদায়িক আগুন কারা জ্বালিয়েছে?


এই সাম্প্রদায়িক আগুন কারা জ্বালিয়েছে?

আমাদের নতুন সময় : 23/10/2021

খান আসাদ

‘তৌহিদী জনতা’, যারা ইসলামী রাজনীতির কর্মী সমর্থক। যারা ১৯৭১ সালে রাজাকার আলবদর ছিলো, এরপর বাংলাদেশে জামায়াত, শিবির, হিযবুত তাহরির, হেফাজত ইত্যাদি নানা নামে রাজনীতি করে। তাদের অনেকে বিএনপি-আওয়ামী লীগেও যোগ দিয়েছে। অনেকে গোপন জঙ্গি দলে নাম লিখিয়েছে। অনেকে সামরিক, বেসামরিক, আমলাতন্ত্রে জায়গা নিয়েছে। কিন্তু বিশ্বাসে সাম্প্রদায়িক, মুক্তিযুদ্ধের বিরুদ্ধে। বাংলাদেশের ও বাঙালির বিরুদ্ধে। সুযোগ পেলেই তারা আগুন জ্বালায় ও জ্বালাবে।
এই আগুন যাতে না লাগানো হয় ও এই আগুন যারা লাগায় তাদের ধরে বিচারের আওতায় আনার জন্য আপনি পাহারাদার পালেন ট্যাক্স দিয়ে। এই পাহারাদাররা, স্থানীয় আমলা, পুলিশ, কী করছে? তারা নির্বিকার কেন?
সাম্প্রদায়িক হামলায় তাদের নীরবতা ও পরোক্ষ সমর্থনের কারণ আমি সত্যিই জানি না। হতে পারে, তাদের ওপর মহল, কর্তাব্যক্তিদের নির্দেশ আছে। হতে পারে তারা নিজেরাই জামায়াত-শিবির ক্যাডার, রাষ্ট্রযন্ত্রের ভেতরে। যদি তারা ওপরমহলের চাপের কারণে নীরব নিষ্ক্রিয় থাকে, তাহলে সেই ‘ওপরমহল’ কারা? রাজনৈতিক সরকার (নানা পদের মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী), নাকি সামরিক-বেসামরিক আমলা নেতৃত্ব যারা মূলত রাজনৈতিক সরকারকেও প্রভাবিত করে? সমাজবিজ্ঞানের ছাত্র হিসেবে হাইপোথেসিস নিয়ে কথা বলতে পারি, কিন্তু দূরে বসে তথ্য ছাড়া আসলেই জানি না, স্থানীয় আমলাতন্ত্রের নিষ্ক্রিয়তার কারণ কী? যারা নানা রকমের ষড়যন্ত্রতত্ত্ব দিচ্ছেন, তারা হয় নির্বোধ অসচেতন বিশ্বাসঘাতক, না বুঝে সাম্প্রদায়িক শক্তিকে আড়াল করছেন, অথবা ছদ্মবেশি সাম্প্রদায়িক। কযধহ অংধফ-র ফেসবুক ওয়ালে লেখাটি পড়ুন।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]