• প্রচ্ছদ » » বাংলাদেশকে আমরা পাকিস্তান-আফগানিস্তান হতে দেবো না


বাংলাদেশকে আমরা পাকিস্তান-আফগানিস্তান হতে দেবো না

আমাদের নতুন সময় : 23/10/2021

শেখ আদনান ফাহাদ

আওয়ামী লীগের হিন্দু নেতাদের, হিন্দু এমপিদের আলাদা করে হিন্দুদের জন্য কথা বলতে হবে কেন? আওয়ামী লীগ তো সব ধর্মের মানুষের জন্যই। হিন্দুরা আক্রান্ত হলে আমরা কি দাঁড়াচ্ছি না? যখনই কেউ আক্রান্ত হবে দল, সরকার, প্রশাসন তাঁর পাশে দাঁড়াবে, দাঁড়াচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার লড়াইয়ে পুরো জাতি ঐক্যবদ্ধ। ভারত-পাকিস্তানের মতো বাংলাদেশ ধর্মের বিভাজনের ভিত্তিতে জন্ম নেয়নি। বাংলাদেশ জন্ম নিয়েছে বাঙালি জাতীয়তাবাদের প্রধানতম রুপকার, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ধর্মনিরপেক্ষতার শক্তিতে। ধর্মনিরপেক্ষতা মানে ধর্মহীনতা নয়।
ধর্মনিরপেক্ষতার নামে ইসলাম ধর্মকে অপমান করার হীন প্রয়াস থেকেও আমাদের সকলকে বেরিয়ে আসতে হবে। বঙ্গবন্ধু যেমন বলেছিলেন, তিনি বাঙালি, তিনি মুসলমান, একবার মরেন দুইবার মরেন না। তারও আগে ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত ভাষার মর্যাদা প্রতিষ্ঠায় পাকিস্তানিদের সামনে হুংকার দিয়েছিলেন। আবার বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পরে মোশতাকদের মন্ত্রিসভায় হিন্দু মন্ত্রীও ছিলেন। ত্রিদিব রায় নামের রাজাকারও ছিলো। একজন হিন্দু মন্ত্রী যেমন তাঁর ধর্ম পালন করে আবার দেশের সবার জন্য, সব ধর্মের মানুষের জন্য কাজ করেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও নিজের ইসলাম ধর্ম পালন করেই সব ধর্মের, সব শ্রেণির মানুষের জন্য কাজ করেন। যারা ভারতের নরেন্দ্র মোদী বা পাকিস্তানের ইমরান খানকে নিজেদের নেতা মনে করেন সমস্যাটা তাদের।
বিদেশি এবং তাদের দালালদের প্রেসক্রিপশনে বাংলাদেশ চলবে না। বাংলাদেশ চলবে তাঁর নিজের নেতা, বঙ্গবন্ধুকন্যার নেতৃত্বে। আমরা বাংলাদেশকে পাকিস্তান-আফগানিস্তান হতে দেবো না, একই সাথে ভারতের বিজেপি-নেতৃত্বাধীন হিন্দুত্ববাদী গোষ্ঠীর করতলেও যেতে দেব না। বাংলাদেশকে যে ভালোবাসবে এই বাংলাদেশ তাঁর। এখানে কে হিন্দু কে মুসলমান সেটা বিবেচ্য বিষয় নয়। প্রশাসন সবার জন্য, আইন সবার জন্য। এখানে কেউ সংখ্যালঘু নয়। আসল সংখ্যালঘু তো সেই যে আসলে সম্পদলঘু, গরিব, অসহায়। ধর্মের নামে রাজনৈতিক স্বেচ্ছাচারিতার সুযোগ বাংলাদেশে ধীরে ধীরে কমাতে হবে। কোরআন শরীফ কে বা কারা রেখে আসল মন্দিরে, কীভাবে যেতে পারল, এর উত্তর কি জানা গেলো? এই উত্তর জানা গেলেই, দুধ কা দুধ, পানি কা পানি হু জায়েগা। অসাম্প্রদায়িক হতে গেলে জামায়াত-বিজেপি সবাইকেই ঘৃণা করতে হবে। ঝযবরশয অফহধহ ঋধযধফ-র ফেসবুক ওয়ালে লেখাটি পড়ুন।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]