• প্রচ্ছদ » » সংখ্যাগরিষ্ঠের বাড়াবাড়িকে বিভিন্ন চেক অ্যান্ড ব্যালেন্সের মধ্যে নিয়ে আসাই আসল লড়াই


সংখ্যাগরিষ্ঠের বাড়াবাড়িকে বিভিন্ন চেক অ্যান্ড ব্যালেন্সের মধ্যে নিয়ে আসাই আসল লড়াই

আমাদের নতুন সময় : 23/10/2021

শাহ আলী ফরহাদ

শুনেন, একটা কথা বলি। হয়তো অনেকের ভালো লাগবে না কথাটা। আপনারা আমার রাজনৈতিক আদর্শ সম্পর্কে জানেন, সংখ্যালঘু ইস্যুতে আমার নীতি সম্পর্কেও আশা করি অবগত। কিন্তু বাঙালি হিসেবে, বাংলাদেশি হিসেবে কথাটা বলতেই হয়। বিভিন্ন হ্যাশট্যাগ দিয়ে বা বিদেশিদের ট্যাগ করে নালিশ দিয়ে ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের কোনো লাভই হবে না, তাদের শুধুই অন্য দেশের অভ্যন্তরীণ রাজনীতির চালের ঘুটি বানানোর সুযোগ করে দেওয়া হবে। অন্যায় আমাদের, করেছে আমাদের মানুষ। ঠিক করার আর বিচার করার দায়ও আমাদেরই। আর যেহেতু প্রধানমন্ত্রী হিসেবে বঙ্গবন্ধুকন্যা এখনো আছেন, আমার বিশ^াস আমরা এই দায়িত্ব পালন করতে পারবো। কেন ভাবী তাও বলি। ২০০৯ সাল থেকে সংবিধানে সকল ধর্মের সমান অধিকার ফিরিয়ে আনা, সকল ধর্মের মানুষের জন্য আলাদা আলাদা করে কল্যাণ ট্রাস্ট তৈরি করা, নিজ ধর্মের শিক্ষায় শিক্ষিত হওয়ার সুযোগ করে দেওয়া, সকল ধর্মের গুরুত্বপূর্ণ উৎসবগুলোকে জাতীয় পর্যায়ে মর্যাদার সঙ্গে পালন করার সুযোগ করে দেওয়াসহ ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের জন্য যা যা কাজ শেখ হাসিনার সরকার করেছে, তা আর কোনো সরকার করেনি। তাই আমার আশাটাও তার কাছে, অন্য কারও কাছে নয়।
সাম্প্রতিক বৈশি^ক অবস্থা ফলো করলে দেখবেন কোনোখানেই সংখ্যালঘুদের অবস্থা খুব একটা ভালো নয়। পাশর্^বর্তী দেশসমূহে ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের কথাতো আমরা জানিই। বাকিদের অবস্থা কাছাকাছিই। সমস্যার ব্যাপ্তিতে কমবেশি হতে পেরে, কিন্তু ইউটোপিয়া বলে কিছু নেই। কৃষ্ণাঙ্গ হওয়ার কারণে, মুসলিম বা পূর্ব ইউরোপীয় হওয়ার কারণে, ব্রাউন বা চাইনিজসহ বিভিন্ন পরিচয়ের কারণে পৃথিবীর প্রতিটি কোণায় সাধারণ মানুষ দৈনন্দিন জীবনে বৈষম্যের শিকার হচ্ছে, অপমানিত হচ্ছে, নির্যাতিত হচ্ছে। সংখ্যাগরিষ্ঠের জোরদারি পুরো পৃথিবীতেই চলছে, কেউ বাদ নেই। এই সংখ্যাগরিষ্ঠের বাড়াবাড়িকে বিভিন্ন চেক অ্যান্ড ব্যালেন্সের মধ্যে নিয়ে আসাই আসল লড়াই। এই লড়াই সবার। কিন্তু সবার আগে আমার, আপনার। ঝযধয অষর ঋধৎযধফ-র ফেসবুক ওয়ালে লেখাটি পড়ুন।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]