দ্বিধায় আছেন ফেরদৌস

আমাদের নতুন সময় : 27/11/2021

ইমরুল শাহেদ: করোনা মহামারির কারণে গ্ল্যামার জগতের প্রায় সকলেই কার্যত কর্মহীন জীবন কাটিয়েছেন। বিশেষ করে উচ্চ পারিশ্রমিক পাওয়া তারকারাই ঘর থেকে কোনোদিকে নেহায়েত দরকার না হলে বের হননি। যাননি শুটিং জোনেও। নাটকের যারা লোকশনে গেছেন তাদের কেউ কেউ করোনা আক্রান্ত হয়ে ঘরে ফিরেছেন। আবার অনেকেই সুস্থ থেকেই কাজ করে গেছেন। কিন্তু চলচ্চিত্র তারকারা এ ব্যাপারে যথেষ্ট সচেতনতা দেখিয়েছেন। চলচ্চিত্র ইউনিটগুলোই যেখানে কর্মবিমুখ ছিলো সেখানে তারকাদের কাজ করার সুযোগ কোথায়? তারপরও কিছু কিছু প্রোডাকশনের কাজ হয়েছে। ফেরদৌস পুরান ঢাকায় মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক অনুদানের একটি ছবিতে কাজ করেছেন। কাজ করেছেন আরও দু’একজন তারকাও। গত ২৪ নভেম্বর ফেরদৌস কাজ করেন জেডএইচ মিন্টু পরিচালিত অনুদানের ‘ক্ষমা নেই’ ছবিতে। শুটিং হচ্ছিলো এফডিসির প্রশাসনিক ভবনের ছাদের ওপর। তার সঙ্গে উল্লেখযোগ্যদের মধ্যে ছিলেন অর্চিতা স্পর্শিয়া। এই দু’জন করোনার নিষেধাজ্ঞা শিথিল হওয়ার পর বিটিভির একটি অনুষ্ঠানও উপস্থাপনার কাজ করেছেন। ‘ক্ষমা নেই’ ছবিতে ফেরদৌস একজন প্রক্টরের চরিত্রে অভিনয় করছেন।
সম্প্রতি তার ভারত যাওয়ার ওপর যে নিষেধাজ্ঞা ছিলো সেটা প্রত্যাহার হয়েছে। এজন্যও তিনি অনেকটা সপ্রতিভ। দেখা হতেই অনেকটা রসিকতার ছলেই তার কাছে জানতে চাওয়া হলো, ওপারে যাচ্ছেন কবে? ফেরদৌস বলেন, এ মাসেই কলকাতা যাওয়ার কথা ছিলো। কিন্তু যাওয়া হয়নি। যেতে পারি ডিসেম্বর মাসের মাঝামাঝি সময়ে। তিনি বলেন, ‘যা করার জন্য ওপার থেকে ডাক এসেছে, সেটা করবো কিনা এখনো দ্বিধায় আছি।’ কারণ যারা ডেকেছেন তারা তাকে স্পষ্ট করেননি, কাজটা চলচ্চিত্রের নাকি ওটিটি প্ল্যাটফর্মের জন্য কিছু। তিনি এখনই ওটিটির জন্য কাজ করবেন কিনা সিদ্ধান্ত নিতে পারছেন না। কিন্তু আগামীদিনের প্রদর্শন ক্ষেত্রতো ওটিটিই বলা হলে তিনি বলেন, ওটিটি প্ল্যাটফর্মের তো রকমভেদ আছে। এটাও একটা দ্বিধা।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]