• প্রচ্ছদ » » মুক্তবাজার, পুঁজিবাদী অর্থনীতি-মাফিয়া চক্র


মুক্তবাজার, পুঁজিবাদী অর্থনীতি-মাফিয়া চক্র

আমাদের নতুন সময় : 01/12/2021

জাকির তালুকদার : ছাত্র আন্দোলনের ইতিহাস যতোটুকু পড়েছি তাতে দেখেছি জন্মলগ্ন থেকেই ছাত্রলীগ এবং ছাত্র ইউনিয়ন বাস, ট্রেন, লঞ্চসহ সকল পরিবহনে ছাত্রদের অর্ধেক ভাড়ার দাবি করে আসছেন। পরবর্তী সময়ে জন্ম নেওয়া সকল ছাত্র সংগঠনই এই দাবি করেছেন। এখনো করে আসছেন। ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাতা শেখ মুজিব এই দাবি করেছেন। শেখ হাসিনা ছাত্র রাজনীতি করার সময় এই দাবি করেছেন। প্রধান বিরোধী দলের ছাত্র সংগঠন জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল যখন ডাকসুর নির্বাচিত নিয়ন্ত্রক, তারাও এই দাবি করেছেন। এই যে পরিবহন নেতা শাজাহান খান, ছাত্রলীগ এবং জাসদের রাজনীতি করতেন, তিনিও এই দাবিতে সরব ছিলেন কিনা জানি না। তবে তখনকার রাজনীতির ট্রেন্ড অনুযায়ী তারও সরব থাকারই কথা। অন্তত বিরোধিতা করেননি নিশ্চিত। স্বাধীনতার ৫০ বছরে এসে জানা যাচ্ছে, কোনো দলই ক্ষমতায় থাকার সময় ছাত্রসমাজের চিরন্তন দাবি অনুযায়ী এই আইনটি করেনি। দুই দলই ক্ষমতায় ছিলো এবং আছে। অথচ ক্ষমতায় বসেই তারা ছাত্রদের দল, মত, নির্বিশেষ এই যৌক্তিক দাবির কথা বেমালুম ভুলে যান। অথবা ভুলে না গিয়ে তাদের উপায় থাকে না। কারণ এদেশে পরিবহন সেক্টর হচ্ছে অন্যতম বৃহৎ মাফিয়া চক্র। মাফিয়ারা কী করে? প্রশাসন, পুলিশ, রাজনৈতিক দল, সরকারের বিভিন্ন নীতি-নির্ধারকদের নিয়মিত পুষ্টি যোগায়। বিনিময়ে জনগণের ওপর যথেচ্ছ অর্থনৈতিক, শারীরিক আঘাত করার নিঃশব্দ অনুমোদন লাভ করে। এখন তো এই মাফিয়াদের প্রতিনিধি আছে সংসদে ও সরকারে। ছাত্ররা আন্দোলন করছে হাফ পাসের দাবিতে। দেখা যাচ্ছে আগে একই দাবিতে স্লোগানে গলায় রক্ত তুলে ফেলা ছাত্রনেতা ও বর্তমান সরকারের মন্ত্রী-এমপিরা এই বিষয়ে নিশ্চুপ। ত্রিপাক্ষিক আলোচনায় সম্প্রতি নতুন তথ্য- পরিবহন মালিকরা হাফ পাস তো মানবেই না, উল্টো তারা সরকারের কাছ থেকে ভর্তুকি দাবি করেছে। আমার আশঙ্কা, মুক্তবাজার পুঁজিবাদী অর্থনীতির ধারক সরকার পরিবহন মাফিয়ার কাছেই নতি স্বীকার করবে। রামপাল, পরিবেশ, চাল, ডালের মূল্য হ্রাস, তেলের দাম না বাড়ানোসহ কোনো গণদাবি এই সরকারের কাছে গ্রহণযোগ্যতা পায়নি। হয়তো ছাত্রদের দাবিও উপেক্ষিত থেকে যাবে। মাফিয়াতন্ত্রের মচ্ছবের দেশে এটাই জনগণের নিয়তি। লেখক : কথাসাহিত্যিক। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]