• প্রচ্ছদ » » মানুষ কিছুই ভুলে যায় না, মানুষ জবাব দেয়, ভয়ানকভাবে দেয়


মানুষ কিছুই ভুলে যায় না, মানুষ জবাব দেয়, ভয়ানকভাবে দেয়

আমাদের নতুন সময় : 06/12/2021

আর রাজী : নির্বোধের মুখখিস্তির কোনো জবাব হয় না। সুতরাং এটা ভাবার কোনো কারণ নেই যে, যারা নীরব আছে তারা এসব অন্যায়, অবিচার, অপকর্ম, অপরাধে মৌনসম্মতি জানাচ্ছে। অর্থাৎ নীরবতা মানেই মৌনসম্মতি নয়।
ভয়ানক বিপর্যয়কর অবস্থায় কেবল মুখে মুখে প্রতিবাদ করে সামান্য কিছু ফলও আদায় করা সম্ভব নয়Ñ এই বোধ মানুষের মধ্যে দৃঢ় হয়েছে। কারও কাছে কিছুই চাওয়ার নেই, কাউকে কিছুই বলার নেই, মানুষের মনে সেই বিশ^াস পোক্ত হয়েছে। ফলত সামান্য প্রতিবাদকেও আশ্রয় করতে না পেরে মানুষ ক্রোধে ফুঁসছে। আজ হোক, কাল হোক এই চাপা ক্রোধের বিস্ফোরণ ঘটবেই। সেই ক্ষণেই কেবল বুঝতে পারা যাবে- মানুষ কিছুই ভুলে যায় না। মানুষ জবাব দেয়। ভয়ানকভাবে দেয়।

তাদের মেয়ে সন্তান নেই?

গোলাম মোর্তোজা : সৌভাগ্য যে তার এই কথা আগে শুনিনি। দুর্ভাগ্য যে, দেরিতে হলেও শুনলাম। দায়িত্বশীল পদের একজন মানুষের এতোটা মানসিক বিকৃতি হতে পারে। এতোটা বিকৃত একজন মানুষকেও দায়িত্ব দেওয়া যায়। তার দলে নারী নেই? তাদের মেয়ে সন্তান নেই? এরপরও তারা নারী অধিকার নিয়ে কথা বলবে। নারী নেতারা চুপ করে থাকবে।
সন্তানতুল্য একজন নারীর প্রতি তিনি হেইট ক্রাইম করেছেন

শওগাত আলী সাগর : সরকারের মন্ত্রী, দলের এমপিদের যেকোনো কাজের দায় দায়িত্ব দল এবং সরকারের ওপর বর্তায়। কার্যকর শাসনব্যবস্থা বিদ্যমানÑপৃথিবীর এমন যেকোনো দেশে তাই হয়। তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রীর ব্যাপারে সরকারের এবং দল হিসেবে আওয়ামী লীগের দায়িত্ব নেওয়া দরকার। প্রতিমন্ত্রী হয়তো তার পাবিবারিক শিক্ষা এবং ব্যক্তিগত রুচির প্রকাশ ঘটিয়েছেন। কিন্তু তার ব্যক্তিগত রুচি থেকে যে কথাগুলো তিনি বলেছেন, সেগুলো স্পষ্টতই হেইট ক্রাইমের আওতায় পরে। সন্তানতুল্য একজন নারীর প্রতি তিনি হেইট ক্রাইম করেছেন। এই অপরাধের শাস্তি হওয়া উচিত।
তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রীকে অবিলম্বে অপসারণ করার দাবি জানাই। রাষ্ট্র হিসেবে বাংলাদেশ যে অসভ্যতাকে প্রশ্রয় দেয় না, সেই বার্তা দেওয়ার জন্যই তাকে অপসারণ করা জরুরি।


সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]