• প্রচ্ছদ » বিনোদন » ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির মামলা থেকে শিক্ষা নিয়েছেন মিথিলা


ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির মামলা থেকে শিক্ষা নিয়েছেন মিথিলা

আমাদের নতুন সময় : 15/12/2021

ইমরুল শাহেদ: ই-কমার্স ইভ্যালি প্রতিষ্ঠান প্রতারণা মামলায় হাইকোর্ট থেকে জামিন পাওয়ার পর অভিনেত্রী ও মডেল মিথিলা গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন উত্থাপন করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘আমাদের আর্টিস্টদের সাপোর্ট করার জন্য সেভাবে আইনজীবী নেই। মিডিয়ার এসব ইস্যু ডিল করার জন্য প্রপার এজেন্সি নেই, আমাদের ম্যানেজার নেই। এগুলো আমাদের ইনডিভ্যিজুয়ালি ডিল করতে হয়। এগুলোর জন্য আমি প্রস্তুত ছিলাম না। আমি একশোর ওপর ব্র্যান্ড এনডোর্স করেছি, যেগুলো অনেক বড় বড় ব্র্যান্ড বাংলাদেশের। এই ধরনের একটা হয়রানিমূলক পরিস্থিতির জন্য আমি একেবারেই প্রস্তুত ছিলাম না।’ অথচ মিডিয়া জগতের শিল্পীদের জন্য রয়েছে অভিনয় শিল্পী সংঘ। মেয়াদ শেষ হলেই ব্যাপক প্রচার-প্রচারণার মধ্য দিয়ে তাদের নির্বাচনও অনুষ্ঠিত হয়। কিন্তু এই সমিতি কেন? শিল্পীদের যদি কাজে না আসে তাহলে সমিতি-কমিটি দিয়ে কী হয়? চলচ্চিত্রের জন্যও রয়েছে শিল্পী সমিতি। এই সমিতি তো শিল্পীদের কল্যাণের জন্য। চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি থেকে বছর দু’য়েক আগে ১৮৪ জন শিল্পীর সদস্যপদ স্থগিত করা হয়েছিলো। তারা আইনি লড়াইয়ের মাধ্যমে ক’দিন আগে সে সদস্যপদ ফেরত পেয়েছেন বলে শোনা যাচ্ছে। সামনেই সমিতির নির্বাচন। তারা আশা করছেন আগামী নির্বাচনে ভোট দিতে পারবেন। প্রশ্ন হচ্ছে, শিল্পীদের জন্য সুরক্ষার ব্যবস্থা থাকবে না কেন? অভিনয় শিল্পী সংঘ বা চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিই হোক, তাদের সুরক্ষার জন্য আইনজীবী থাকা অবশ্যই প্রয়োজন। এর ব্যয়ভার সমিতি বা সংঘ বহন না করলেও যার কারণে আইনজীবী, সংশ্লিষ্টরাই ব্যয় বহন করবেন। এমন আইনজীবী প্রয়োজন যিনি এই ক্ষেত্রটাকে বুঝবেন এবং সঠিকভাবে উপস্থাপন করতে পারবেন। মিথিলার মতো আগামীদিনে যাতে আর কোনো মিথিলাকে এই নিয়ে আফসোস করতে না হয়।


সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]