[১]সুনামগঞ্জের হাওরে বোরো ধানের চারা রোপণের ব্যস্ততা

আমাদের নতুন সময় : 02/01/2022

রাজা ইমন: [২] কৃষকরা কনকনে শীত উপেক্ষা করে ভোর থেকে বিকাল পর্যন্ত কৃষকরা আগাছা ও বন পরিস্কার করে হাল চাষের উপযোগ করছেন। এবং অন্য দিকে বোরো ধানের চারা উঠিয়ে রোপণের কাজে নিজেদেরকে ব্যস্ত রেখেছেন। [৩] তবে কোনো কোনো হাওরে এখনো পুরোপুরি জমি থেকে পানি সরে যায়নি।[৪] কৃষি বিভাগ জানায় জেলায় এ বছর বোরো মওসুমে চাষের লক্ষ্যমাত্রা র্নিধারণ করা হয়েছে ২লাখ ২২ হাজার ৬৯৫ হেক্টর। [৫] সরেজমিনে ও স্থানীয় কৃষকদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, গত বছর বোরো মওসুমে বাম্পার ফলন হওয়ায় হাওর পাড়ের কৃষকরা এবার জমি আবাদে আরও বেশি উৎসাহিত হয়েছেন। কম সময়ে বেশি ফলনের আশায় কৃষকরা ব্রি- ২৮ ও ব্রি ২৯ ধানের পাশা পাশি বিভিন্ন জাতের ধানের বীজের চারা রোপন করছেন কৃষকরা। [৬] সদর উপজেলার হাছন নগরের কৃষক সিরাজুল ইসলাম,দোল্লভপুর গ্রামের আব্দুল জলিল বিশ^ম্ভরপুর উপজেলা ইকবাল, এবং তাহিরপুর উপজেলার কৃষক সফিকুল ইসলাম তারা জানান গত বছর হাইব্রিড জাতের ধানের ফলন ভালো হওয়ায় এবার আমরা এসব বীজ কিনে বপণ করছি। প্রতি কেদারে ৪ টি চাষ ও অন্যান্য খরচ সহ ৬ থেকে ৭ হাজার ব্যয় হয়। অনেক আশাভরসা নিয়ে বোরো মওসুমে চাষাবাদে নেমেছি। [৮] কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. ফরিদুল হাসান বলেন সরকার জেলায় হাই- ব্রীড এবং উফশী বীজ প্রনোদনার কারণে কৃষকরা বিনামূল্য বীজ পেয়েছেন । আবহাওয়া অনুকূলে এবং হাওর ভাল থাকলে কৃষকদের আশাপুরণ হবে বলে আমার বিশ্বাস।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]